আপনার লেখা আর্টিকেল আমাদের সাইটে পাবলিশ করুন

বছর শেষে এক নম্বর উইলিয়ামসন

বছর শেষে এক নম্বর উইলিয়ামসন

গত ৫ বছর ধরে এক নম্বরের দ্বৈরথে ছিলেন কেবল স্টিভেন স্মিথ ও বিরাট কোহলি। এবার তাদের দুজনকে পেছনে ফেলতে পারলেন কেন উইলিয়ামসন। পাকিস্তানের বিপক্ষে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টের অসাধারণ সেঞ্চুরিতে আইসিসি টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে থেকে বছর শেষ করলেন নিউ জিল্যান্ড অধিনায়ক।

নিউ জিল্যান্ডের রোমাঞ্চকর জয়ের এই টেস্টে ১২৯ ও ২১ রানের ইনিস খেলে উইলিয়ামসন পান ১৩ রেটিং পয়েন্ট। তাতেই পেছনে পড়ে যান কোহলি ও স্মিথ।

ভারতের বিপক্ষে বক্সিং ডে টেস্টে দুই ইনিংস মিলিয়ে ৮ রান করে স্মিথ শীর্ষ থেকে নেমে গেছেন দুই ধাপ। এই টেস্টে বিশ্রামে থাকা কোহলি রয়ে গেছেন দুই নম্বরেই।

উইলিয়ামসনের রেটিং পয়েন্ট এখন ৮৯০, কোহলির ৮৭৯, স্মিথের ৮৭৭।

২০১৫ সালের নভেম্বরে প্রথমবার শীর্ষে ওঠার স্বাদ পেয়েছিলেন উইলিয়ামসন। তবে কিছুদিন পরই হারান জায়গা। এরপর থেকে তা কেবল হাতবদল হয়েছে স্মিথ ও কোহলির মধ্যে। এই বছরও ৩১৩ দিন শীর্ষে ছিলেন স্মিথ, ৫১ দিন কোহলি। শেষ বেলায় সেরার হাসি উইলিয়ামসনের।

ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে আরেকটি উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অজিঙ্কা রাহানের। মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টে ম্যাচ জেতানো সেঞ্চুরি করে ভারতের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক ৫ ধাপ এগিয়ে উঠেছেন ৬ নম্বরে। তার ক্যারিয়ার সেরা অবস্থান ৫ নম্বর, উঠেছিলেন ২০১৯ সালের অক্টোবরে।

আরেকটি বক্সিং ডে টেস্টে সেঞ্চুরিয়নের শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৯৯ রানের ইনিংস খেলে দক্ষিণ আফ্রিকার ফাফ দু প্লেসি এগিয়েছেন ১৪ ধাপ। তার অবস্থান এখন ২১তম।

বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ চারে নেই পরিবর্তন। আগের মতোই শীর্ষে আছেন প্যাট কামিন্স, এরপর যথাক্রমে স্টুয়ার্ট ব্রড, নিল ওয়্যাগনার ও টিম সাউদি। দুই ধাপ এগিয়ে পাঁচে উঠেছেন মিচেল স্টার্ক। দুই ধাপ এগিয়েই রবিচন্দ্রন অশ্বিনের অবস্থান সপ্তম। তিন ধাপ পিছিয়ে আটে নেমে গেছেন জশ হেইজেলউড। এক ধাপ এগিয়ে জাসপ্রিত বুমরাহ উঠেছেন নয়ে।

অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে যথারীতি শীর্ষে বেন স্টোকস। সাকিব আল হাসান আছেন চারে।

DM Sayed
মানুষ কখনো হারে না, হয়তো সে জিতবে নয়তো সে শিখবে